Breaking News
Home / News / টুইটার হতে বরখাস্ত হলেন মার্কিন সাবেক প্রেসিডেন্ট “ডোনাল্ড ট্রাম্প”

টুইটার হতে বরখাস্ত হলেন মার্কিন সাবেক প্রেসিডেন্ট “ডোনাল্ড ট্রাম্প”

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে টুইটার থেকে স্থায়ীভাবে বরখাস্ত করা হয়েছে। কোম্পানিটি বলছে, “ভবিষ্যতে সহিংসতা উস্কে দেবার ঝুঁকি” থাকার কারণে এটা করা হয়েছে।

টুইটার বলছে “@realDonaldTrump অ্যাকাউন্ট থেকে টুইট গুলো গভীর পর্যবেক্ষণ এবং সেটাকে ঘিরে যে প্রেক্ষাপট তৈরি” হয়েছে তার ভিত্তিতে তারা এই সিদ্ধান্তটি নিয়েছে।

মি. ট্রাম্পের অ্যাকাউন্টটি টুইটার কর্তৃপক্ষ ১২ ঘণ্টার জন্য অচল করে রেখেছিল এর আগে।

টুইটার তখন সতর্ক করে বলেছিল, তারা মি. ট্রাম্পকে চিরস্থায়ীভাবে নিষিদ্ধ করবে যদি তিনি এই প্ল্যাটফর্মের নিয়মনীতি ভঙ্গ করেন।

ট্রাম্পের টুইট অ্যাকাউন্ট স্থায়ীভাবে বন্ধ করার প্রতিক্রিয়ায় তার ২০২০ সালের ক্যাম্পেইন উপদেষ্টা জ্যাসন মিলার টুইট করেছেন “জঘন্য, আপনি যদি ভাবেন তারা পরবর্তীতে আপনার দিকে আসবে না তাহলে আপনি ভুল করছেন”।

শুক্রবারে সার্চ ইঞ্জিন গুগল- সম্পূর্ণ মুক্ত মতামতের প্লাটফর্ম ‘পার্লার’ স্থগিত করে, যেটা ট্রাম্প সমর্থকদের মধ্যে জনপ্রিয়তা পাচ্ছিল।

গুগল বলেছে “মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে চলমান সহিংসতা উস্কে দিচ্ছে যেসব পোষ্ট, তেমন কিছু পার্লার অ্যাপ এ অনবরত পোষ্ট করা হচ্ছে সে সম্পর্কে আমরা সতর্ক আছি”।

মি. ট্রাম্পের টুইটার ব্লক করে দেয়া হয় শুক্রবার

তিনি বুধবার বেশ কিছু টুইট করেন যেখানে ক্যাপিটল হিলে হামলাকারীদের “দেশপ্রেমিক” বলা হয়েছিল।

অনলাইন ভিত্তিক বেশ কিছু প্ল্যাটফর্মে নিষিদ্ধ ট্রাম্প
বৃহস্পতিবার ফেসবুক বলেছে তারা মি. ট্রাম্পকে অনির্দিষ্ট সময়ের জন্য নিষিদ্ধ করেছে।

জনপ্রিয় গেমিং প্ল্যাটফর্ম টুইস্ট ট্রাম্পকে অনির্দিষ্ট কালের জন্য নিষিদ্ধ করেছে।

এই চ্যানেল ব্যবহার করে তিনি তার সমাবেশ সম্প্রচার করতেন।

টুইটারে সরব ছিলেন ট্রাম্প

স্ন্যাপচ্যাট থেকে নিষিদ্ধ তিনি।

ট্রাম্পের মেমোরিবিলিয়া বিক্রি করে এমন দুইটি অনলাইন স্টোরকে এ সপ্তাহে নিষিদ্ধ করেছে ই-কর্মাস কোম্পানি শপিফাই।

ট্রাম্প টুইটারে তার প্রতিপক্ষদের অপমান করতেন, মিত্রদের উৎসাহিত করতেন, কর্মকর্তাদের চাকরিচ্যুতি করতেন, এবং তার ক্ষোভ প্রকাশ করতেন।

তিনি প্রায়ই ইংরেজি ক্যাপিটাল লেটার অর্থাৎ বড় অক্ষর ব্যবহার করতেন। এবং তার তার পয়েন্টটা নজরে আনার জন্য বিস্ময়সূচক চিহ্ন ব্যবহার করতেন।

যদিও সমালোচকরা বলেন তার সেইসব পোষ্ট ছিল ভুল-তথ্য প্রবাহ, এই মাধ্যম ব্যবহার করে তিনি মূলধারার গণমাধ্যমকে পাশ কাটিয়ে মুহূর্তের মধ্যে তার ৮৯ মিলিয়ন অনুসারীর সাথে যোগাযোগ করতে পারতেন।

তার টুইট ভুল বানানের জন্য পরিচিত ছিল

“টুইটারে ব্যক্তিগত অ্যাকাউন্ট চিরতরে বন্ধ হলেও দমে যাননি আমেরিকার বিদায়ী প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। বরং দ্বিগুণ উৎসাহে তাঁর হুঙ্কার, এ বার নিজস্ব সোশ্যাল প্ল্যাটফর্ম গড়ে তুলবেন।„

সূত্রঃ BBC NEWS

Content Writer : Silhad Mahfuz
©Royal Force 71

About royalforce71

Check Also

ইয়াজুজ মাজুজ কারা? কীভাবে তারা পুনরায় পৃথিবীতে এসে ধ্বংস চালাবে।

ইয়াজুজ মাজুজ হলো এমন এক জাতী যারা আমাদের দুনিয়াতেই আছে কিন্তু এই আধুনিক যুগেও এদের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Skip to toolbar